ঈশ্বরদীতে বশিাক্ত মদ পানে রাশিয়ান নাগরিকের মৃত্যু, অসুস্থ আরো ৩

0
80
ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে র্কমরত রাশিয়ানদের আবাসকি পল্লী গ্রীন সিটিতে শনিবার রাতে বিষাক্ত মদ পান করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দিমত্রি (৪১) নামক এক রাশিয়ান নাগরিকের মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় গুরুতর অসুস্থ অপর তিনজনকে ঈশ্বরদী, রাজশাহী ও পরে ঢাকাতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
গুরুতর অসুস্থরা হলনে- মিখাইল, র্বাকােলভ আলেকজান্ডার এবং লগোচেভলেব ব্লাদিমরিভিচ। তাঁরা প্রত্যেকেই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের মুল নির্মাণ কোম্পানি এএস ই এর সাব ঠিকাদারী রাশিয়ান কোম্পানি নিকমিথ এতরোস্তরায় র্কমরত ছিলেন। গ্রীণসিটির আবাসিক চিকিৎসক ও নিকমিথ এতেরাস্তরায় কোম্পানির দুই বাঙালি দোভাষী ও গাড়ির এক চালক নাম প্রকাশ না করার র্শতে এই খবরের তথ্যগুলো নিশ্চিত করেছেন।
গ্রীণ সিটির একাধিক সূত্র মতে, নিকমিথ এতোরোস্তরায় কোম্পানরি এই চার রাশিয়ান নাগরিক সন্ধ্যায় গ্রীণ সিটির ৫নং ভবনের ১২ তলার ২১২নং ফ্লাটে এক সঙ্গে বসে মদ পান করছিল। রাত আনুমানকি ৮টার দিকে তাঁরা আর্কষিকভাবে পেট ও বুকে ব্যথায় অচেতন হয়ে পড়েন। বিষয়টি টের পেয়ে অন্যান্য রাশিয়ান নাগরিকরা গ্রীণ সিটির র্কতব্যরত আবাসিক ডাক্তারকে খবর দেন। পরে তাদের অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরদী উপজলো স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেই রাত পৌনে ১১টার দিকে দিমিত্রীর মৃত্যু হয়। আর অসুস্থ অপর তিনজনকে হেলিকপ্টার যোগে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে সুত্রগুলো দাবি করেন।
সূত্রগুলো অভিযোগ করেসুত্রগুলো দাবি করন।
সূত্রগুলো অভযিোগ করে বলেনে, নিকিমিথ এতরোস্তরায় কোম্পানির কয়েকজন বাঙালি দোভাষী, গাড়রি চালকরে মাধ্যমে একটি বির্তিকতি সাপ্লাই কোম্পানি আধপিত্য বিস্তার করে বিষাক্ত মদসহ বিভিন্ন ধরনরে মাদক কোম্পানটিতিে সাপ্লাই দিয়ি আসছে এই কোম্পানটিি প্রকল্পরে অন্যান্য সকল কোম্পানরি রাশয়িান নাগরকিদরে নিকটও এসব বিষাক্ত মদ সাপ্লাই দিয়েছ। আসছে। ফলে প্রায়ই রাশিয়ান নাগরিকদের অকাল মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। আর এই প্রত্যেকটি মৃত্যুকে সুকৌশলে র্হাট র্এ্যাটাক বলে চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলেও সুত্রগুলো দাবি করেন।
এ বিষয়ে জানতে ঈশ্বরদী থানার ডিউটি অফিসার জানান, চার রাশিয়ান নাগরিক মদ পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে গেছেন বলে খবর পাওয়া গলেও তাদের একজনের মৃত্যু হওয়ার কোনো খবর তাঁর জানা নেই বলে দাবি করনে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here