গুদাম ভরা কোটি টাকার সরকারি ওষুধ

0
173

বগুড়ার মফিজ পাগলা মোড়। দুই বছর আগে সেই মোড়ের সাইরুল ইসলামের সাততলা ভবনের তৃতীয় থেকে পঞ্চম তলা পর্যন্ত ভাড়া নেন ওষুধ ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান রবিন (২৮)। রবিন সেখানে গড়ে তোলেন ওষুধের গুদাম। সবই চলছিল ঠিকঠাক। এরই মধ্যে পুলিশের কানে চলে যায়, রবিনের ওই গুদামে গোপনে মজুদ করা হয়েছে সরকারি ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম। এ খবর পেয়ে গত শনিবার রাতে ওষুধ ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান রবিনকে আটক করে পুলিশ। পরে গতকাল রবিবার দুপুরে অভিযানে নামে পুলিশ। রবিনের ওষুধের গুদামে ঢুকে পুলিশের চোখ তো ছানাবড়া। গুদামে থরে থরে সাজানো বৈধ ওষুধের ভিড়ে মিলল অবৈধভাবে মজুদ করা সরকারি ওষুধও।

পুলিশের দাবি, জব্দ করা সরকারি ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জামের মূল্য কোটি টাকার ওপরে। রবিন বগুড়ার সারিয়াকান্দির চৌবাড়ি গ্রামের হাজি রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি বগুড়া পৌর এলাকার নারুলীতে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। এর আগে তিনি বগুড়ার পাইকারি ওষুধের মার্কেট হিসেবে পরিচিত মেরিনা মার্কেটে ওষুধের পাইকারি ব্যবসা করতেন।

বগুড়া সদর থানার ওসি এস এম বদিউজ্জামান জানান, রবিন ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল নামে ওষুধের পাইকারি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে বিপুল পরিমাণ সরকারি ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম মজুদ আছে বলে পুলিশ খবর পায়। গত শনিবার রাতে ব্যবসায়ী রবিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি তাঁর গুদামে সরকারি ওষুধ ও সরঞ্জাম মজুদের বিষয়টি স্বীকার করেন।

সিভিল সার্জন ডা. সামির হোসেন মিশু জানান, পুলিশের হাতে আটক ওই ওষুধ ব্যবসায়ী বলেছেন, সরকারি হাসপাতালে ওষুধ ও সরঞ্জাম সরবরাহের দায়িত্ব থাকা ব্যক্তি এবং হাসপাতালের গুদামরক্ষকদের কাছ থেকে তিনি ওষুধগুলো পেতেন। তাঁর এ অভিযোগ খতিয়ে দেখে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here