পাবনায় আরো অনেক স্থানেই এডিস মশা রয়েছে ধারণা স্বাস্থ্যবিভাগের

0
140

আর কে আকাশ,পাবনা প্রতিনিধি : পাবনা পৌর এলাকার তিনটি স্থানে ডেঙ্গু জ্বরের জীবাণু বাহক এডিস
মশার লার্ভার সন্ধান পেয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। ফলে তারা ধারনা করছে পাবনা জেলার আরো অনেক স্থানেই
এডিস মশার অস্তিত্ব থাকতে পারে।
আজ বৃহস্পতিবার (০৮ আগস্ট) নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ডেকে সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্যই জানালেন
পাবনার সিভিল সার্জন ডাঃ মেহেদী ইকবাল।

সংবাদ সম্মেলনে সিভিল সার্জন জানান, জেলা সিভিল সার্জন অফিসের কীটতত্ত্ববিদ হেলাল উদ্দিনের নের্তৃত্বে
একটি দল জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে গত ৬ আগস্ট পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে জেলার বিভিন্ন স্থানে পরীক্ষা
চালিয়ে জেলার কোথাও ডেঙ্গু জীবাণুবাহী এডিস মশার অস্তিত্বপাওয়া যায়নি।
গত ৭ আগস্ট পৌর এলাকার ত্রিশটি পয়েন্টের পানি সংগ্রহ করে তিনটি স্থানে এডিস মশার লার্ভার সন্ধান
পায়।

স্বাস্থ্য বিভাগের বিশেষ টিম শহরের বাস টার্মিনাল, বিআরটিসি বাস ডিপোতে পরিত্যাক্ত টায়ারে জমে থাকা
পানিতে এবং আব্দুল হামিদ রোডের একটি নির্মাণাধীণ ভবনে এডিস মশার লার্ভার সন্ধান পেয়েছে।
সিভিল সার্জন আরো জানান, যেহেতু তিনটি পৃথক স্থানে লার্ভা পাওয়া গেছে, সেহেতু জেলার আরো অনেক
স্থানেই এডিস মশা রয়েছে বলে ধারণা করা যায়।

গত কয়েকদিন ধরে বৃষ্টি বৃদ্ধি পাওয়ায়, এডিস মশার বিস্তারে অনূকুল পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। নিজ নিজ বাড়ির
আশেপাশের মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস করতে জনগণকে উদ্যোগী হবার আহবান জানান তিনি।
এদিকে, মাঝে কিছুটা কম থাকলেও পাবনা জেনারেল হাসপাতালে আবারো বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. রঞ্জন কুমার দত্ত জানান, জেলায় গেল ২৪ ঘন্টায় ১৩
জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পাবনা জেনারেল হানপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আর একই হাসপাতালে বর্তমানে ৩৭
জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি আছেন। এই নিয়ে গত ১৮ দিনে ১৫৩ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পাবনা
জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here