পুরুষরা পালিয়ে বেড়াচ্ছে, নারীরা আতঙ্কে

0
6
বিশেষ প্রতিনিধি
পাবনার ফরিদপুরে প্রতিপক্ষের হামলার ভয়ে একটি পরিবারের পিতা ও দুই পুত্র বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এমনকি হামলার আশঙ্কায় বাড়িতে থাকা নারী ও শিশুরা চরম আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। প্রায়ই প্রতিপক্ষের লোকজন ওই নারীদেরকে বাড়ি ছাড়তে হুমকি ধামকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ওই পরিবারের সদস্যরা। উপজেলার ডেমড়া ইউনিয়নের হাড়োডাঙ্গা গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। নিরুপায় হয়ে ভুক্তভোগী পরিবারটি গত শুক্রবার চাটমোহর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।
লিখিত অভিযোগ ও অনুসন্ধানে জানা গেছে, উপজেলার ডেমড়া ইউনিয়নের হাড়োডাঙ্গা গ্রামের অটোভ্যান চালক আলতাব হোসেনের পরিবারের সাথে বাড়ির সীমানা নির্ধারণ নিয়ে প্রতিবেশী আকরাম হোসেনের পরিবারের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। আকরাম হোসেন গ্রামের প্রভাবশালী মাতব্বর। বিরোধের সূত্র ধরে আকরাম ও তার পরিবারের লোকজন মাঝেমধ্যেই আলতাব এবং তার বাবা ও ভাইকে মারধর করে। এক পর্যায়ে গত ২২ জানুয়ারি আকরাম ও তার পরিবারের লোকজন আলতাবের বড় ভাই আলমাচ ও তার স্ত্রী রিনা খাতুনকে মারধর করে। বিষয়টি নিয়ে আলতাব হোসেন গ্রামের প্রধানবর্গের কাছে অভিযোগ দেয়। কিন্তু প্রধানবর্গ এ বিষয়ে সালিশ করতে ব্যর্থ হয়। এঅবস্থায় আকরাম ও তার দলবলের লোকেরা গত ৩ মার্চ মীমাংসার কথা বলে আলতাব এবং তার বড় ভাই আলমাচ ও বাবা হানিফ আলীকে গ্রামের প্রাইমারি স্কুলের মাঠে ডেকে নিয়ে খুঁটির সাথে বেঁধে রেখে মারধর করে। পরে গ্রামবাসী থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে ওই তিনজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতালে থাকা অবস্থায় আকরামের লোকজন আলতাব ও তার পরিবারের লোকজনকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এতে ভয়ে আলতাব এবং তার ভাই আলমাচ ও বাবা হানিফ আলী বাড়িতে ফিরতে সাহস পাচ্ছে না। এভাবে গত ১২ দিন ধরে তারা আত্মীয় স্বজনের বাড়িতে অবস্থান করছে। এরপর থেকে তারা বাড়িতে ফিরতে গ্রামের প্রধানবর্গের শরণাপন্ন হলেও আজ পর্যন্ত ফিরতে পারেনি। পরে উপায়ন্তর না দেখে শুক্রবার চাটমোহর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন আলতাব হোসেন।
আলতাব হোসেনের ভাবী রিনা খাতুন জানান, আকরাম হোসেনের পরিবারের লোকজন বাড়িতে গিয়ে তাদেরকে বাড়ি ছাড়তে হুমকি দিচ্ছেন। তাছাড়া স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন বাড়ি ফিরলে তাদেরকে মেরে ফেলা হবে বলে শাসিয়ে যায়। এখন ছেলেমেয়ে নিয়ে খুব ভয়ে দিন কাটছে তাদের।
হাড়োডাঙ্গা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল আজিজ বলেন, আকরাম হোসেন গ্রামের মধ্যে অত্যন্ত প্রভাবশালী ও দাঙ্গাবাজ প্রকৃতির একজন ব্যক্তি। তার পরিবারের অনেক সদস্য পূর্বে চরমপন্থী দলের সাথে যুক্ত ছিল। তাই তার পরিবারকে গ্রামের সবাই ভয় পায়। এ কারণে আলতাব হোসেনের পরিবার নির্যাতিত হলেও গ্রামবাসী কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছে না।
হাড়োডাঙ্গা গ্রামের ইউপি সদস্য আব্দুল আলীম বলেন, বাড়ির সীমানা নির্ধারণ নিয়ে আলতাব হোসেনের পরিবারের সাথে আকরামের পরিবারের বিরোধ চলছে। বিষয়টি গ্রামের প্রধানবর্গ স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই বিষয়টি উপজেলা পর্যায়ের সিনিয়র রাজনীতিবিদদের জানানো হয়েছে। পরবর্তীতে তারাই সমাধান দিবেন।
এ বিষয়ে কথা বলতে আকরাম হোসেনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
এব্যাপারে ফরিদপুর থানার ওসি আবুল কাশেম আজাদ বলেন, বাড়ির সীমানা নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে কয়েকবার সংঘর্ষ হলে পুলিশের হস্তক্ষেপে তা নিরসন হয়। এখন থানা পুলিশ বিষয়টি পর্যবেক্ষণে রেখেছে।
অভিযোগ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে চাটমোহর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সজীব শাহরীন বলেন, অভিযোগ তদন্ত করতে একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্ত শেষে তিনি আগামী মঙ্গলবারের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here