ব্যালট পেপারে সিল, কিশোরগঞ্জের অ্যাডিশনাল এসপি-ওসি বরখাস্ত

0
210

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. শফিকুল ইসলাম ও কটিয়াদী থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীনকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে নির্বাচন কমিশন।

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আগের রাতে ব্যালট পেপারে সিল মারার ঘটনায় এর আগে তাদের প্রত্যাহার করা হয়।

প্রত্যাহার হওয়া কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. শফিকুল ইসলাম ও কটিয়াদী থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীনকে

বৃহস্পতিবার দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে দুই মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করে নির্বাচন কমিশন। একই সঙ্গে চাকরিবিধি অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলামূলক কার্যধারা গ্রহণ করার জন্য সিদ্ধান্ত প্রদান করেছে।

বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের জারি করা পৃথক প্রজ্ঞাপনে সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন ও অর্থ) মো. কামাল উদ্দিন বিশ্বাস স্বাক্ষরিত কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. শফিকুল ইসলামকে দুই মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত এবং চাকরিবিধি অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলামূলক কার্যধারা গ্রহণের বিষয়টি জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপসচিব (জ:ব্য:) মো. সাবেদ উর রহমান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে প্রত্যাহারের আদেশপ্রাপ্ত কটিয়াদী থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীনকে দুই মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত এবং চাকরিবিধি অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে শৃঙ্খলামূলক কার্যধারা গ্রহণের বিষয়টি জানানো হয়েছে।

একই দিন বৃহস্পতিবার প্রত্যাহারের আদেশপ্রাপ্ত কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. শফিকুল ইসলাম ও কটিয়াদী থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বরাবর চিঠি পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত গত ২৪ মার্চ কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পর বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে রাতের এই ভোটের খবর আসতে থাকে। এ রকম পরিস্থিতিতে সকাল পৌনে ৯টার দিকে প্রথমে উপজেলার ৫টি কেন্দ্র ও এক ঘণ্টা পরই উপজেলার সব কেন্দ্র (৮৯) ভোটগ্রহণ বন্ধ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

একই সঙ্গে প্রত্যাহার করা হয় দুই পুলিশ কর্মকর্তা কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শফিকুল ইসলাম ও কটিয়াদী থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীনকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here