ভাঙ্গুড়ায় গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টায়;আটক -১

0
157

নিজস্ব প্রতিনিধি:পাবনার ভাঙ্গুড়ায় দাবিকৃত যৌতুকের পাঁচত্তর হাজার টাকা না পেয়ে শারীরিক নির্যাতনের পর এক সন্তানের জননী ফাহিমা আক্তার ফুর্তি (২৪) নামের এক গৃহবধূর মুখে বিষ ঢেলে হত্যার চেষ্টা তার স্বামী জালেম্বরকে আটক করেছে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ । গতকাল শনিবার রাতে এক অভিযান চালিয়ে পাটুলী পাড়া তার নিজ বাসগৃহ থেকে তাকে আটক করে।

নির্যাতিতা ফাহিমা সাংবাদিকদের জানান, যৌতুকের টাকার জন্য তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোক জন প্রায়ই অমানুষিক নির্যাতন করত। কিন্তু সকল কিছু ভুলে একমাত্র সন্তানের সুখের কথা ভেবে আমার বাবার বাড়ির কাউকে কিছু বলিনি। কিন্তু গত ১৭ মে সন্ধ্যা রাতে আমাকে তিন তিন বার করে স্বামী, দেবর ও ভাসুর ধরে মারে। তার একপর্যায়ে লাঠি দিযে আমার মাথায় আঘাত করলে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। এরপর তাকে মৃত ভেবে তার মুখে বিষ ঢেলে দেয় পাষন্ড স্বামী জলেম্বর ।

এসময় স্থানীয়রা এসে ফাইমাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে তিনি বাড়িতে ফিরে এসে গত বৃহস্পতিবারে স্বামীসহ ৬জনকে আসামী করে নারী ও শিশু র্নিযাতন আইনে ভাঙ্গুড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। তবে ঘটনার পর থেকেই স্বামী জালেম্বর আলী গা ঢাকা দিয়েছিল।

ফহিমার পিতা মোজাহার আলী বলেন, পাঁচ বছর পূর্বে ওই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে জালেম্বর আলীর সাথে সামাজিকভাবে তার মেয়ে ফাহিমার বিয়ে হয়। ১ বছর পর তাদের ঘরে জুলি খাতুন (৪) নামে কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। বিয়েতে ১ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে ফাহিমার শ্বাশুরবাড়ির লোকজন। সে মেয়ের জামাইকে ৫০ হাজার টাকা দেই। গত তিন বছর পূর্বে জালেম্বর তার স্ত্রী ও সন্তানকে আমার আমার বাড়িতে রেখে যৌতুকের টাকা নিয়ে বিদেশে চলে যান। গত দের মাস পূর্বে জালেম্বর বিদেশ থেকে ফিরে শশুরবাড়ি গিয়ে তার স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে আসে। পরে স্বামী জালেম্বর ও শ্বাশুরবাড়ির লোকজন দাবিকৃত যৌতুকের বাকি টাকার জন্য ফাহিমাকে মারধর শুরু করে। সে নিযার্তন সইতে না পেরে আবার আমার বাড়িতে চলে আসে। গত শনিবার(১৭ মে) সকালে গ্রাম্যপ্রধানসহ উভয় পক্ষকে এলাকাতে ঘরোয়া বৈঠক বসে। বৈঠক শেষে ফাইমাকে নিয়ে স্বামী জালেম্বর বাড়িতে চলে যান। ওইদিন রাতেই স্বামী ও শ্বাশুরবাড়ির লোকজন অমানুষিক নিযার্তন শুরু করে তাকে হত্যা চেষ্টা করেন। তিনি আরও বলেন আমরা দরিদ্র মানুষ আমরা কি ন্যায় বিচার পাব?

ভাঙ্গুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাসুদ রানা বলেন, অভিযোগ পেয়ে আসামীদের মধ্যে ১জনকে শনিবার রাতে আটক করে রবিবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here