পাবনা জেলা পরিষদের মহিলা মেম্বরের নামে সাত লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

0
42

বিশেষ প্রতিনিধি ঃ
পাবনা জেলা পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য (১ ,২ ও ৩নং ওয়ার্ড সাঁথিয়াÑবেড়া) জেলা পরিষদ হতে নয় লাখ টাকা বরাদ্দ নিয়ে এলাকার হতদরিদ্র ব্যক্তিদের আত্মকর্মসংসথান সংস্থার জন্য নতুন রিক্সা-ভ্যান ও সেলাই মেশিন এর পরিবর্তে কয়েকটি পুরাতন রিক্সা-ভ্যান ও সেলাই মেশিন দিয়ে প্রায় সাত লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
পাবনা জেলা পরিষদের মহিলা সদস্য ও বেসরকারী এনজিও সংস্থা দিগন্ত সমাজ কল্যাণ সংস্থার নির্বাহী পরিচালক শামসুন্নাহার মুক্তা জেলা পরিষদ হতে ৯ লক্ষ টাকা বরাদ্দ পেয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে এলাকার হতদরিদ্রদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য পুরুষদের মধ্যে রিক্সা-ভ্যান ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মহিলাদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ করেন গত ১৮ মে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পাবনা জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী আতাউর রহমান, সাঁথিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ দেলোয়ার, সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার, এস,এম জামাল আহমেদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা খোকন ও সেলিমা সুলতানা শিলা প্রমুখ। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে অতিথিবৃন্দ নতুন পাঁচটি ভ্যান ও পাঁচটি সেলাই মেশিন বিতরণ করে চলে গেলে শামসুন্নাহার মুক্তা ভ্যানের পরিবর্তে পুরাতন রিক্সা নয়টি যাদের প্রতিটি মূল্য চার হাজার টাকা ও পুরাতন সেলাই মেশিন ১১টি যাদের মূল্য দুই হাজার টাকার বেশি নয়। এ সময় উপকারভোগীরা প্রতিবাদ করলে মুক্তা বলেন, পারলে লও না পারলে চলে যাও। পুরাতন ও মরিচাপড়া রিক্সাগুলো বিভিন্ন স্থান হতে কিনে এনে নম্বর প্লেট সহ সবস্থানের রং তুলে ফেলে রিপিয়ারিং করে নতুন রং দিয়ে বিতরণ করা হয়। রিক্সাগুলো যে পুরতান যা দেখলেই বুঝা যায়। এছাড়া পুরাতন সেলাই মেশিন কিনে এনে রং করে মেশিনের নতুন কভার দিয়ে বিতরণ করেন।
পাবনা জেলা পরিষদ সূত্রে জানা যায়, শামসুন্নাহার মুক্তা জেলা পরিষদ হতে ৯ লক্ষ টাকা বরাদ্দ পেয়ে রিক্সা-ভ্যান ও সেলাই মেশিন বিতরণ করেন। প্রেরিত তথ্যে ও ভাউচারে তিনি ২০টি রিক্সা-ভ্যান এর মূল্য ৬ লক্ষ টাকা এবং ৩৩টি সেলাই মেশিন এর জন্য ৩ লক্ষ টাকা ব্যয় দেখিয়েছেন। এতে করে প্রতিটি রিক্সা-ভ্যান এর দাম পরে ৩০ হাজার টাকা এবং প্রতিটি সেলাই মেশিনের দাম পরে নয় হাজার ৯০ টাকা।
জানা যায়, নতুন ভ্যানের দাম সর্বোচ্চ ১৫ হাজার এবং পুরাতন রিক্সার দাম সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা। নতুন সেলাই মেশিনের সেটের দাম সর্বোচ্চ ৭ হাজার এবং পুরাতন মেশিনের দাম তিন হাজার টাকার বেশী নয়। প্রেরিত তথ্যের হিসাব অনুসারে ২০টি রিক্সা-ভ্যান এর পরিবর্তে ১৪টি রিক্সা-ভ্যান ও ৩৩টি সেলাই মেশিনের পরিবর্তে ১৫টি সেলাই মেশিন বিতরণ করেছেন। প্রেরিত তথ্যানুযায়ী সর্বাধিক ২ লক্ষ টাকা প্রকল্পে ব্যয় করে অবশিষ্ট সাত আত্মসাৎ করেছেন।
কেন পুরাতন রিক্সা-ভ্যান নিলেন জানতে চাইলে জনৈক এক উপকারভোগী বলেন আগেই প্রাপ্তি স্বীকার স্বাক্ষর নিয়েছিলেন। কেন পুরাতন রিক্সা দিচ্ছেন জানতে চাইলেন আমাদের মুক্তা বলেন, তোমার ইচ্ছে হলে এই রিক্সাই লও না হলে চলে যেতে পার। বাধ্য হয়েই এ পুরাতন মরিচা পরা রং করা রিক্সা নিতে হলো। একই ধরনের প্রশ্নের জবাবে নাম বলতে ইচ্ছুক জনৈক মহিলা বলেন, এই পুরাতন সেলাই মেশিন তোদেরকে দেয় কে? আগামীতে তোদের নতুন মেশিন দেওয়া হবে। জেলা পরিষদের জনৈক সদস্য শামসুন্নাহার মুক্তা ফেইসবুকের স্ট্যাটাস দেখে বিষ্ময় ও হতাশা প্রকাশ করে বলেন জেলা পরিষদ হতে টাকা বরাদ্দ নিলেও তার স্ট্যাটাসে জেলা পরিষদে নাম পর্যন্ত উল্লেখ করেন নাই। যা থেকে জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষ মর্মাহত হয়েছে।
এ ব্যাপারের জেলা পরিষদের মেম্বর সাসুন্নাহার মুক্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, একটি কুচক্রি মহল তার সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য অপপ্রচার চালাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here